February 25, 2024, 6:18 am
শিরোনাম:
মনোহরদীতে শীতার্তদের মাঝে মন্ত্রীপুত্রের শীতবস্ত্র বিতরণ মনোহরদীতে পাট চাষীদের প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত কক্সবাজারে অর্থের বিনিময়ে মেহেদী পত্রিকার বিরুদ্ধে মিথ্যা সংবাদ প্রচারের কলেজ ছাত্র সোহেল কে হয়রানির অভিযোগ মনোহরদীতে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে ছয় লাখ টাকা জরিমানাসহ গুড়িয়ে দেয়া হয়েছে ইটভাটা মনোহরদীতে মন্ত্রীপুত্রকে ফাঁসাতে মিথ্যা নাটক সাজানোর প্রতিবাদে কেন্দ্রীয় যুবলীগ সাংগঠনিক সম্পাদকের বিরুদ্ধে মানববন্ধন অবৈধভাবে ইটভাটা পরিচালনা ও মাটি কাটার অপরাধে ৪ জনকে কারাদণ্ডসহ ৫ লক্ষ টাকা অর্থদণ্ড, এক্সক্যাভেটর আটক ফেসবুকে ভিডিও ভাইরাল, ইউপি চেয়ারম্যান কর্তৃক নৌকার ভোটারদের কেন্দ্রে প্রবেশে বাধা মনোহরদীতে দরিদ্র শিক্ষার্থীদের মাঝে পোশাক বিতরণ মনোহরদীতে শীতার্তদের মাঝে ইউএনও র শীতবস্ত্র বিতরণ মনোহরদীতে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন “আমরা মনোহরদীর সন্তান” এর ১যুগ পূর্তি উদযাপন

বাংলাদেশের মানুষেকে ভালবাসাটায় যেন আমার দোষ

Reporter Name
  • আপডেটের সময় : সোমবার, জুন ৮, ২০২০
  • 559 দেখুন

রায়হান ইসলাম, রাবি প্রতিনিধিঃ

ডা. ফেরদৌস খন্দকার একটি নাম, একটি নিবেদিত প্রাণ। চলমান পরিস্থিতির কথা চিন্তা নিজের অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগাতে জীবনের সর্বোচ্চ ঝুঁকি নিয়ে যখন সুদুর নিউইয়র্ক থেকে বাংলাদেশে আসলেন শুধুমাত্র প্রাণের মানুষগুলোর পাশে থাকবে বলে।

তখন কিছু অপপ্রচারকারী মহল তাকে এই মহৎ কাজ থেকে দুরে রাখতে চালাচ্ছে নানান অপপ্রচার।মানুষের সেবা দিতে গত রবিবার বাংলাদেশে এসেই হেনস্তার মুখে পড়েছেন নিউইয়র্কের খ্যাতিমান মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডা. ফেরদৌস খন্দকারফেসবুকে তিনি লিখেছেন, বুক ভরা আশা নিয়ে এসেছিলাম মা তোমার পাশে থাকবো বলে।

মনে হয় এয়ারপোর্ট থেকেই অজানা উদ্দেশ্যে সব শেষ করে দিলো ওরা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম গুলোতে কিছু অভিযোগ ওঠেছে ডা. ফেরদৌস খন্দকার খুনি মোশতাকে ভাতিজা এবং খুনি কর্নেল রশিদের খালাতো ভাই।

বাংলাদেশে তার যাওয়ার উদ্দেশ্য নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন অনেকে। কিন্তু এয়ারপোর্ট থেকেই এসবের প্রতিবাদ জানিয়ে নিজের ফেসবুকে তার জবাব দিয়েছেন তিনি। নিচে তার প্রতিবাদ স্বরূপ ফেইসবুক স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে দেয়া হলো:প্রিয় বাংলাদেশ।

দেশে এসেছিলাম নিজের অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে করোনা নিয়ে সবার পাশে দাঁড়িয়ে কাজ করতে। তার জন্যে জীবনের ঝুঁকি নিতেও আমি পিছপা হইনি। যখন ভালো উদ্দেশ্য নিয়ে আমি দেশে এসেছি, তখন একদল লোক আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অপপ্রচার শুরু করেছে।

বলা হচ্ছে, আমি নাকি খুনি খন্দকার মোশতাকের ভাতিজা কিংবা খুনি কর্নেল রশিদের খালাতো ভাই। অথচ পুরো বিষয়টি কাল্পনিক। আমার বাড়ি কুমিল্লার দেবিদ্বারে। কুমিল্লায় বাংলাদেশের অসংখ্য মানুষের বাড়ি। কুমিল্লা বাংলাদেশের একটি সনামধন্য জেলা।

কুমিল্লায় বাড়ি হলেই কেউ খুনি মোশতাকের ভাতিজা কিংবা কর্নেল রশিদের খালাতো ভাই হয়ে যায় না। আমি স্পষ্ট করে বলছি, এই দুই খুনির সাথে আমার পারিবারিক কিংবা আদর্শিক কোনো সম্পর্ক নেই। বরং বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক হিসেবে আমি তাদেরকে চরম ঘৃণা করি।

ফলে যারা এই খারাপ কথাগুলো ছড়াচ্ছেন, বলছেন, তাদের উদ্দেশ্য পরিস্কার; ভালো কাজে বাধা দেয়া। এটা অন্যায়। আমি তীব্র প্রতিবাদ ও ঘৃণা জানাচ্ছি। সেই সাথে প্রমাণের জন্যে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিচ্ছি। যদি মনে করেন আমার সেবা আপনাদের দরকার, তাহলে পাশে থাকুন।

এদিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার ভক্তরা অপপ্রচারকারীদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন স্ট্যাটাসের মাধ্যমে প্রতিবাদ করেন এবং গুজবে কান না দিয়ে তাকে বাংলাদেশের মানুষের পাশে থাকার অনুরোধ করেন।তারাও তাকে সর্বোচ্চ সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর

https://bd24news.com © All rights reserved © 2022

Design & Develop BY Coder Boss
themesba-lates1749691102