June 24, 2024, 6:22 am
শিরোনাম:
মনোহরদীতে দিনব্যাপী পাট চাষী প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত মনোহরদীতে মাদ্রাসা শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রকে বেধরক মারধরের অভিযোগ মনোহরদীতে জনমত জরিপ ও প্রচার-প্রচারণায় এগিয়ে ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী তৌহিদ সরকার মনোহরদীতে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী “আলোকিত গোতাশিয়া” ফেসবুক গ্রুপের পক্ষহতে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ মনোহরদীতে অসহায়দের মাঝে শিল্পমন্ত্রীর ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ মনোহরদীতে ব্রহ্মপুত্র নদী থেকে বালু উত্তোলনের দায়ে খননযন্ত্র ও বালুর স্তুপ জব্দ এতিম শিশুদের নিয়ে ইফতার করলেন মনোহরদীর ইউএনও হাছিবা খান ঢাকা আইনজীবী সমিতির কার্যনির্বাহী কমিটির নির্বাচনে বিজয়ী মনোহরদীর সন্তান এ্যাড.কাজী হুমায়ুন কবীর মনোহরদীতে ব্রক্ষ্মপুত্র নদীতে অভিযান ১০টি ম্যাজিক জাল জব্দ

ময়মনসিংহ জেলার ১৩ উপজেলা হলো ভূমিহীন ও গৃহহীণমুক্ত

তাপস কর, ময়মনসিংহ প্রতিনিধি
  • আপডেটের সময় : বৃহস্পতিবার, আগস্ট ১০, ২০২৩
  • 246 দেখুন

মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে ময়মনসিংহে বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে ৪র্থ পর্যায়ে জমি ও গৃহ প্রদান কার্যক্রম-এর শুভ উদ্বোধনের মাধ্যমে ময়মনসিংহ জেলার ৬ টি উপজেলা যথাক্রমে-ময়মনসিংহ সদর, মুক্তাগাছা, ঈশ্বরগঞ্জ, গফরগাঁও, হালুয়াঘাট ও ধোবাউড়ায় ৭৯৫ টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের নিকট জমিসহ গৃহ হস্তান্তর শেষে ময়মনসিংহ জেলাকে ভূমিহীন ও গৃহহীনমুক্ত ঘোষনা করেছেন প্রধানমন্ত্রী।

৯ আগষ্ট(বুধবার) সকাল দশটায় গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত থেকে ময়মনসিংহ জেলাকে ভূমিহীন ও গৃহহীনমুক্ত ঘোষনা করেন তিনি।

এরই মাধ্যমে ময়মনসিংহ জেলার ময়মনসিংহ সদর, মুক্তাগাছা, গফরগাঁও, ঈশ্বরগন্জ, হালুয়াঘাট এবং ধোবাউড়াসহ মোট ৬ টি উপজেলাকে ভূমিহীন ও গৃহহীনমুক্ত হিসেবে ঘোষণা করা হয়।উল্লেখ্য যে, ইতিপুর্বে ময়মনসিংহ জেলার ভালুকা, ফুলবাড়ীয়া, নান্দাইল, ফুলপুর, ত্রিশাল, গৌরীপুর এবং তারাকান্দা উপজেলাকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ভূমিহীন ও গৃহহীনমুক্ত হিসেবে ঘোষণা করেছেন।

এদিন গফরগাঁও উপজেলাকে ভূমিহীন ও গৃহহীনমুক্ত হিসেবে ঘোষণা উপলক্ষ্যে স্থানীয়ভাবে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ টেলিভিশন হতে সরাসরি সম্প্রচারণকৃত অনুষ্ঠানটি প্রদর্শন করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ফাহমী গোলন্দাজ বাবেল, সংসদ সদস্য, ময়মনসিংহ ১০, মো: মোস্তাফিজার রহমান, জেলাপ্রশাসক ও জেলাম্যাজিস্ট্রেট, ময়মনসিংহ, মাছুম আহাম্মদ ভূঞা, পিপিএম, পুলিশ সুপার, ময়মনসিংহ, মো: আবিদুর রহমান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, গফরগাঁও-ময়মনসিংহ প্রমুখ।

এছাড়াও আরও উপস্থিত ছিলেন বীরমুক্তিযোদ্ধাবৃন্দ, স্থানীয় নেতৃবৃন্দ ও জনপ্রতিনিধিগণ, আশ্রয়ন প্রকল্পের উপকারভোগীবৃন্দ ও প্রিন্ট এবং ইলেকট্রনিক মিডিয়ার প্রতিনিধিগণ। এদিকে,ময়মনসিংহের ১৩ উপজেলায় এখন পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর পেয়েছেন ৪ হাজার ১ শত ২৪ পরিবার।

এ বিষয়ে আশ্রয়ন প্রকল্প-২ এর প্রকল্প পরিচালক(যুগ্ম-সচিব)আবু সালেহ মোহাম্মদ ফেরদৌস খাঁন জানান,চতুর্থ পর্যায়ে দেশে ২২ হাজারেরও বেশী পরিবার পাবেন দুই শতাংশ জমির মালিকানাসহ টিনশেডের সেমিপাকা ঘর।১৯৯৭ সাল থেকে ২০২২ সাল পর্যন্ত আশ্রয়ন প্রকল্পের মাধ্যমে দেশে ৫ লক্ষাধিক পরিবারকে জমিসহ মাথাগোঁজার ঠাঁই করে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

এরমধ্যে কেবল মুজিববর্ষেই ২ লক্ষ পরিবারের হাতে জমিসহ গৃহ নির্মাণের পর এর চাবি হস্তান্তর করা হয়েছে। জানাগেছে,বাংলার অবিসংবাদিত নেতা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭২ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি তৎকালীন নোয়াখালী বর্তমান লক্ষ্ণীপুর জেলার চরপোড়াগাছা গ্রামে ভূমিহীন-গৃহহীন অসহায় ছিন্নমূল মানুষের পুনর্বাসনের কাজ শুরু করেন।

১৯৭৫ সালে বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর স্থবির হয়ে পরে এই কার্যক্রম।পরবর্তীতে ১৯৯৭ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার পর “আশ্রয়নের অধিকার,শেখ হাসিনার উপহার”এই স্লোগানকে উপজীব্য করে ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারসহ জমি আছে ঘর নেই এমন পরিবারের জন্য ক ও খ শ্রেণীর তালিকা তৈরী করে আশ্রয়ন-২ প্রকল্প হাতে নিয়ে তা বাস্তবায়ন করা হয়।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর

https://bd24news.com © All rights reserved © 2022

Design & Develop BY Coder Boss
themesba-lates1749691102